তথ্য-প্রযুক্তি

মানসিক চাপ ও ক্লান্তি থেকে মুক্তি দেবে শার্ট!

যুগের সাথে তাল মিলিয়ে পরিবর্তিত হচ্ছে ফ্যাশন। পোশাক থেকে শুরু করে গয়না, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস সবকিছুতেই নতুনত্ব আনছেন ফ্যাশন ডিজাইনাররা। এসবের কিছু কিছুতে যুক্ত হচ্ছে প্রযুক্তিও। এই যেমন স্মার্ট জুতা কিংবা স্মার্ট ঘড়ি।

এবার এই তালিকায় যোগ হলো স্মার্ট শার্ট। মানুষের শরীরে পরার উপযোগী এসির কথা আমরা শুনেছি। সেই ভাবনাতেই নতুন চমক আনলো স্প্যানিশ ফ্যাশন ব্র্যান্ড সেপিয়া। তারা একটি স্মার্ট শার্ট তৈরি করেছেন যার নাম দিয়েছেন ‘ওয়েলনেস শার্ট’।

প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, তাদের এই শার্ট মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে। এছাড়াও রক্ত প্রবাহের উন্নতি সাধন ও শারীরিক শক্তির মাত্রা বাড়িয়ে দেবে এটি। উল্লেখ্য, বেশ কয়েক বছর ধরেই আধুনিক পোশাক তৈরি করছে সেপিয়া।

প্রথম প্রজন্মের পোশাকে তারা শার্টের কাফ ও ঘাড়ের চারপাশে সংযুক্ত করেছিল দাগ প্রতিরোধী কাপড়, যেন তা ঘন ঘন কাচতে না হয়। আর দ্বিতীয় প্রজন্মের পোশাকে তারা আরও উন্নত কাপড় সংযুক্ত করে, যা অতিরিক্ত ঘাম ও ঘামের কারণে হওয়া ভেজা অবস্থা প্রতিরোধে সক্ষম। এমনকি ঘামের দুর্গন্ধও প্রতিরোধে সক্ষম এটি।

তবে স্মার্ট পোশাকে সেপিয়া তাদের ধারণা পুরোপুরি বদলে ফেলেছে। তারা এমন একটি শার্ট তৈরি করেছে যাতে, পূর্ববর্তী সব বৈশিষ্ট্য তো রয়েছেই পাশাপাশি যুক্ত হয়েছে কিছু বায়োসিরামিক ন্যানো পার্টিকেল যা ব্যবহারকারীর সুস্থতার উন্নতি করে।

জানা যায়, সেপিয়ার আল্টিমেট স্মার্ট ৩.০ নামের এই শার্ট পরিধানকারীর বিপাক ক্রিয়া ত্বরান্বিত করতে পারে। একইসঙ্গে ত্বকের পিএইচ নিয়ন্ত্রণ করে এটি। এটি লিগামেন্ট ও হাড়ে ব্যথা সৃষ্টির জন্য দায়ী ইউরিক এসিডের গঠনেও প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। সবকিছু মিলিয়ে এই শার্ট মানসিক চাপ এবং ক্লান্তি হ্রাস করে, পাশাপাশি পরিধানকারীর সুস্থতার উন্নতি সাধন করে।

শার্টটির বিষয়ে সেপিয়ার সিইও ফেডরিকো সেইঞ্জ বলেন, আমরা স্বস্তিদায়ক পোশাক দিয়ে শুরু করেছিলাম। বর্তমানের আমাদের লক্ষ্য ফ্যাশনকে ব্যক্তিগত কল্যাণের দিকে অগ্রসর করা, যা শারীরিক সুস্থতা দিবে সেসঙ্গে দীর্ঘস্থায়ী হবে।

এই সম্পর্কিত আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close