অর্থ-বাণিজ্যআইন-আদালতআন্তর্জাতিকউপ-সম্পাদকীয়এক্সক্লুসিভ নিউজখেলাধুলাজাতীয়জামালপুর কর্ণারতথ্য-প্রযুক্তিদুর্নীতি-অপরাধফিচারফেসবুক থেকেবিনোদনবৈচিত্রমতামতরাজনীতিলাইফস্টাইলশিক্ষাসম্পাদকীয়সারাদেশস্বাস্থ্য

সততার অনন্য নজির স্থাপন করলেন চটপটি বিক্রেতা

ঝিনাইদহের কালিগঞ্জ উপজেলার চটপটি বিক্রেতা বেলাল হোসেন সততার এক অনন্য নজির স্থাপন করলেন । চলতি পথে কুড়িয়ে পাওয়া ৬৩ হাজার ৫০০ টাকা তুলে দিলেন সত্যিকার মালিকের হাতে। তাঁর এই সততার কারণে বেঁচে গেল কাঠ ব্যবসায়ীর ক্ষুদ্র ব্যবসা।
আরোঃ
শিমুল গাছের মূল যেসব রোগের কাজ করে

স্থানীয় চেয়ারম্যান ও বেলাল হোসেনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) চটপটি বিক্রি করে রাতে বাড়ি ফিরছিলেন বেলাল হোসেন। পথে কোলা বাজারে মন্দিরের কাছে রাস্তার ওপর একটি ব্যাগে টাকার বান্ডিল পান। রাতেই তিনি উপস্থিত হন স্থানীয় চেয়ারম্যানের বাড়িতে। পরদিন শুক্রবার চেয়ারম্যান আইয়ূব হোসেন এলাকায় প্রচার চালিয়ে টাকার মালিককে খুঁজে বের করেন। পরে ওই টাকা তাঁর হাতে তুলে দেওয়া হয়।
আরোঃ
তিন পাত্তি গেম খেলার নিয়ম

বেলাল হোসেন কালীগঞ্জ উপজেলার কোলা গ্রামের নুরুল হক মোল্যার ছেলে। আর হারানো টাকার মালিক একই উপজেলার পারখুলা গ্রামের ক্ষুদ্র কাঠ ব্যবসায়ী আবদুর রশিদ।

বেলাল হোসেন বলেন, আমি নিজে একজন অভাবী মানুষ। বাবা মায়ের অভাবের সংসারে ছোট থেকে বড় হয়েছি। সব সময় সৎ উপায়ে সংসার চালাই। কখনো কারও অর্থের প্রতি লোভ করিনি। প্রকৃত মালিকের হাতে টাকাটা ফেরত দিতে পেরে আমি খুবই খুশি।
আরোঃ
জন্ডিস রোগের মালাপড়া তৈরির নিয়ম

টাকা ফিরে পেয়ে আবদুর রশিদ বলেন, আমি নিজেও গরিব মানুষ। ধারদেনা করে কাঠের ব্যবসা করি। হারানো টাকাটা ফেরত পেয়ে মানুষ সম্পর্কে আমার ধারণা পাল্টে গেছে। বেলাল হোসেন ও চেয়ারম্যানকে মিষ্টিমুখ করাতে চেয়েছি। কিন্তু তাঁরা রাজি হননি।
আরোঃ
হরিতকি যেসব রোগের কাজ করে

এই সম্পর্কিত আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close